Ticker

6/recent/ticker-posts

যদি আপনি বিষণ্ণ বোধ করেন তবে এই গল্পটি আপনার জন্য | motivational story in bengali | short stories with moral lesson | Life changing stories | short stories

যদি আপনি বিষণ্ণ বোধ করেন তবে এই গল্পটি আপনার জন্য | motivational story in bengali | short stories with moral lesson | Life changing stories | short stories


কোন এক মহান ব্যাক্তি দুর্দান্ত একটা কথা বলেছিলেন - মানুষ যে পরিস্থিতিতে এসে মৃত্যুর কামনা করে, আমি সেই পরিস্থিতিতে বেঁচে থাকার শপথ নিলাম।


Motivational story in bengali 'Depression'

আজকের গল্পটি হল প্রায় 50 বছর বয়েসের এক ব্যক্তির। উনার জীবনে হঠাত করেই বিষন্নতা আসতে শুরু করে। উনার খালি মনে হতো উনার জীবনে আর কিছুই ভাল হবার নেই। মানে উনার জীবনে নেগেটিভিটি আসতে শুরু করেছে। সব সময় উদাস হয়ে থাকতেন। বাড়িতে এসে বাচ্চাদের সঙ্গে কিচির কিচির করতেন।

কিন্তু উনি একটা খুব বড় কোম্পানির একটা ভালো পদে চাকরি করতেন। উনার আন্ডারে বেশকিছু স্টাফও ছিল, সবকিছু বেশ ভালই চলছিল। তা সত্বেও উনার মনে হঠাৎ করে বিষন্নতা বাসা বাঁধতে শুরু করলো। উনি ধীরে ধীরে হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়লেন।

motivational story in bengali
motivational story in bengali 

উনার স্ত্রী উনাকে বললেন - তুমি যদি কিছু মনে না করো তোমাকে একটা কথা বলি। তোমার কাউন্সেলিং এর দরকার। আমি একজন ভালো জ্যোতিষী এর খোঁজ জানি। তুমি উনাকে তোমার কুণ্ডলী দেখাতে পারো এবং উনি একজন ভাল কাউন্সিলর ও। আমার মনে হয় উনি তোমাকে বোঝাতে পারবে এখন তোমার কি করা উচিত?

ভদ্রলোক স্ত্রীর কথা মানলেন এবং একদিন গিয়ে উপস্থিত হলেন সেই জ্যোতিষীর কাছে। জ্যোতিষী প্রথম ভদ্রলোকের কুণ্ডলী দেখলেন এবং বললেন আপনার সবকিছু ঠিকঠাক আছে। এই মুহূর্তে আপনার কোন খারাপ দশা নেই। তো বলুন আপনার এখন কি সমস্যা হচ্ছে?

ভদ্রলোক বললেন - সাধারণ মানুষ আমাকে একজন উদ্যমী মানুষ হিসেবে জানে। কিন্তু আমার মনে হচ্ছে আমার ভিতর সেই ইচ্ছা শক্তি নেই। এর উপরে গাড়ির লোন, বাড়ির লোন, বাচ্চার এডুকেশন লোন, অফিসের কাজের টেনশন, বাড়িতে বাচ্চার টেনশন এই সবকিছু নিয়ে আমি কেমন বিধ্বস্ত হয়ে পড়েছি। আমি ধীরে ধীরে ডিপ্রেশনে চলে যাচ্ছি। তো বলুন আমি এখন কি করবো?

কাউন্সিলর জ্যোতিষী ভদ্রলোককে একটা দারুন উপায় বললেন - প্রথমে জিজ্ঞেস করলেন আপনি কোন স্কুলে পড়াশোনা করেছেন?

ভদ্রলোক স্কুলের নাম বললেন। তারপর জ্যোতিষী বললেন আপনি সেই স্কুলে যান এবং যে বছরে আপনি 10th ক্লাস পড়াশোনা করেছেন, সেই বছরের রেজিস্টার জোগাড় করে নিয়ে আসুন। তারপর আমি আপনাকে বলছি আপনাকে কি করতে হবে।

ভদ্রলোক ভাবলেন এই জ্যোতিষী হয়তো সত্যিই একজন ভালো কাউন্সিলর। উনার কথা শুনে হয়তো ভালোই হবে। তো তিনি সেই স্কুলে গিয়ে পৌঁছলেন। স্কুলের কর্তৃপক্ষকে বলে সেই বছরের রেজিস্টার বার করালেন।

কিন্তু পুর রেজিস্টার টা যেহেতু তিনি নিয়ে আসতে পারবেন না তাই তিনি রেজিস্ট্রারের ছবি তুলে নিয়ে কাউন্সিলর জ্যোতিষী এর কাছে আসলেন। তারপর বললেন - এই নিন আমি সেই সমস্ত ছাত্রদের ডেটা নিয়ে এসেছি যারা সেই বছর আমার সঙ্গে পড়াশোনা করেছে।

কাউন্সিলর বললেন - এবার এক কাজ করুন। এই ছাত্রদের মধ্যে এখনো যাকে যাকে চেনেন জানেন, যারা আপনার বন্ধু ছিলেন, ক্লাসমেট ছিলেন, যাদের কথা এখনও আপনার অল্প অল্প মনে আছে, এদের সম্বন্ধে খোঁজ নিন। দেখুন গিয়ে উনারা এখন কি করছেন, কি পরিস্থিতিতে আছেন, কিভাবে জীবন যাপন করছেন?

ভদ্রলোক বললেন - ঠিক আছে আমি খোঁজ নিয়ে দেখছি।

তো ভদ্রলোক উনার 10th ক্লাসের যেসব ছাত্ররা উনার সঙ্গে পড়তো, যাদের উনার অল্প অল্প মনে আছে তাদের একটা লিস্ট তৈরী করলন। এবং এক এক করে সবার বাড়ি যেতে শুরু করলেন। অনেক সময় এর ব্যাপার ছিল। যখন যখন তিনি সময় পেতেন উনার ক্লাসমেটদের বাড়িতে পৌঁছে যেতেন। তো পুরো কাজটা সারতে উনার দু-আড়াই মাস সময় লেগে গেল।

কিন্তু এই পুরোটা সময় তিনি অনেক অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করলেন। তিনি দেখলেন 10th ক্লাসে যারা যারা উনার সাথে পড়তেন তাদের মধ্যে 10% তো এই দুনিয়া ছেড়ে চলে গেছেন। 5% এমন ক্লাসমেট ছিল যাদের ডিভোর্স হয়ে গেছে। ব্যক্তিগত জীবনে তারা সেটেল হতে পারেননি।

কিছু এমন ক্লাসমেট পেলেন যাদের কোনো বাচ্চাকাচ্চা হয়নি। তারপরে কিছু এমন মানুষ কে পেলেন যাঁরা নেশাগ্রস্থ হয়ে গেছে। সারাদিন নেশা করে এখানে সেখানে পড়ে থাকেন।

কিছু ক্লাসমেট এমন পেলেন যারা অসুখে অসুখে জর্জরিত। কেউ হসপিটালে ভর্তি, কারো কারো অপারেশন হবে। উনারা সবসময় হসপিটালের চক্কর লাগিয়ে চলেছেন। কিছু এমন ক্লাসমেটও পেলেন যাদের কোর্টে কেস চলছে।

তো ভদ্রলোক তার সমস্ত ক্লাসমেটদের সঙ্গে দেখা করার পর সেই জ্যোতিষ কাউন্সিলর এর কাছে এসে পৌছলেন। তখন জ্যোতিষ উনাকে জিজ্ঞেস করলেন আপনারা এখন কেমন লাগছে? এখনো কি আপনি বিষন্নতার মধ্যে পড়ে আছেন, না তার থেকে বেরিয়ে আসতে পেরেছেন?

ভদ্রলোক বললেন - না আমি এখন আগের তুলনায় অনেক বেশি খুশি। এখন আমি অনেক ভালো। আর আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ আপনি এরকম একটা অনন্য উপায় দিয়ে আমাকে বোঝালে যে এই দুনিয়ায় মানুষের কত দুঃখ, কত অশান্তি। সেখানে দাঁড়িয়ে আমার দুঃখ অত্যন্ত নগণ্য।

আমি জানি না কেন এত বিষন্নতা অনুভব করতাম কেন এত হতাশ হয়ে পড়েছিলাম। উদাসীনতা আমাকে পেয়ে বসেছিল। ভেবেছিলাম আমার জীবন বুঝি আর ঠিকঠাক চলবে না। কিন্তু আজ বুঝতে পারছি না জানি কত মানুষের থেকে আমি কত ভালো জীবন যাপন করছি। আপনাকে ধন্যবাদ।

চলতে চলতে যদি থমকে যান তো এই গল্পটা দেখুন | Motivational Story bengali

এই Motivational story in bengali থেকে আমরা কি শিখতে পাই ।


জীবনে এরকম বহু মানুষ আছে যারা খুব খারাপ পরিস্থিতিতে বেঁচে আছে, কিন্তু তবুও তারা বেঁচে আছে। তারা বাঁচার আশা ছেড়ে দেয় নি।

জীবনে কখনো আশা ছেড়ে দেবেন না। এটা কখনই ভাববেন না যে নেগেটিভিটি, বিষন্নতা আপনাকে পেয়ে বসেছে। শুধু ভাবুন আজকে আপনার জন্য কি ভালো হয়েছে, যেটা নিয়ে আপনি আজকে নিজে খুশি থাকতে পারেন, অন্যকে খুশি রাখতে পারেন।

যদি আপনি জীবনে প্রতিদিন একটু হলেও ভালো কিছু খোঁজার চেষ্টা করেন, যেমন 1 সেকেন্ড বা 1 মিনিট হলেও তো আপনি কোন না কোন কারনে আজকে একটু হেসেছেন। সেই হাসির মুহূর্ত টিকে যদি আপনি মনে করতে পারেন হয়তো আপনি নেগেটিভিটি থেকে, বিষন্নতা থেকে বেরিয়ে আসতে পারবেন।

তাই আমি বলবো - জীবনে বাঁচার আশা কখনোই ছেড়ে দেবেন না। আপনার কাছে যতটুকু আছে তাই নিয়ে খুশি থাকতে শিখুন আর এমন কাজ করুন যা পুরো দুনিয়া আপনার মত করতে চায়, কারণ জিতবে তারাই যারা কিছু করে দেখাবে।

Think positive, Talk positive, Feel positive । ধন্যবাদ

20 best educational quotes | inspirational educational quotes for students


বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ

‘Freedoms Today’ নামে আমাদের আরেকটি YouTube channel আছে। যেখানে আমরা Network marketing-এর সম্বন্ধে ভিডিও বানিয়ে থাকি। আপনি যদি Network marketing-এর সম্বন্ধে জানতে চান এবং Network marketing শিখতে চান তো এই channel টি follow করতে পারেন। এবং আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে আপনি আমাদের website visit করতে পারেন।

Freedoms Today Website: http://www.freedomstoday.com/

Freedoms Today YouTube channel: https://www.youtube.com/FreedomsToday

Email: freedomstoday1@gmail.com






Post a Comment

0 Comments