Ticker

6/recent/ticker-posts

Positive story | একটি বিচার আপনার জীবন বদলে দিতে পারে | Motivational story bangla | life changing stories

Positive story | একটি বিচার আপনার জীবন বদলে দিতে পারে | Motivational story bangla | life changing stories


গৌতম বুদ্ধ বলছেন - "কিছুই বিচার করতে যাবেন না, আপনি সুখী হবেন। সবকিছু ক্ষমা করুন, আপনি আরও সুখী হবেন। সবকিছু ভালবাসুন, আপনি সবচেয়ে সুখী হবেন।"

positive stories
positive stories

আজকের বাংলা অনুপ্রেরণামূলক ছোট গল্প ‘বিচার’

বহু বছর পূর্বে সম্রাট বিন্দুসার এর সময়ে, সোনাপুর নামে একটি গ্রামে নর হত্যাকারী এক ডাকাতের আর্বিভাব ঘটল। কথিত আছে সমাজ দ্বারা বঞ্চিত হয়ে সে ডাকাতে পরিণত হয়। এবং এই সমাজ এর প্রতি বদলা নেওয়ার জন্য সে প্রতিজ্ঞা করে যে সে ১০০০ নর হত্যা করবে।

তো সেই ডাকাত গ্রামের প্রান্তে এক জংগলের গুহায় আস্তানা গাড়ল এবং এক এক করে নর হত্যা শুরু করল। সে প্রতিটি নর হত্যা করার পর সেই মৃত ব্যক্তির হাতের একটি আঙ্গুল কেটে নিয়ে তাই দিয়ে মালা করে গলায় পরে থাকত। যার ফলে মানুষ তার নাম দিল অঙ্গুলিমাল।

motivational story bangla
motivational story bangla

গ্রামের মানুষ অঙ্গুলিমাল কে যমের মত ভয় পেত। এমনকি সম্রাট বিন্দুসার ও তাকে ভয় পেতেন। কেউই জংগলের এই দিকটা আর মারাত না, কারন সবাই জানত যে এখানে অঙ্গুলিমাল থাকে। গ্রামের মানুষ সেই রাস্তাটাই বন্ধ করে দিলেন।

এদিকে অঙ্গুলিমাল এক এক করে ৯৯৯ টা নর হত্যা করে ফেললেন। তার প্রতিজ্ঞা পুর্ন হতে আর একটি নর হত্যা তাকে করতে হবে। কিন্তু সেটা খুব কঠিন হয়ে দাঁড়াল। কারন মানুষ সেইদিকে যাওয়া ছেড়েই দিয়েছিলেন।

এমনকি শোনা যায়, অঙ্গুলিমাল এর মা তার সাথে মাঝে মাঝে সেখানে দেখা করতে যেতেন। কিন্তু সেই মা’ও আর তার সাথে দেখা করতে যাওয়া ছেড়ে দিলেন। কারন উনি ভাবতেন অঙ্গুলিমাল তার প্রতিজ্ঞা পুর্ন করার জন্য তাকেই না হত্যা করে বসে।

তো এমনি এক সময়ে ঘুরতে ঘুরতে সেই গ্রামে এসে উপস্থিত হলেন, মহাত্মা বুদ্ধ। এবং পরেরদিন গ্রাম ছেড়ে বিদায় নেবার সময় মহাত্মা বুদ্ধ জংগলের সেই রাস্তাটা ধরেই এগিয়ে যাচ্ছিলেন যেদিকে অঙ্গুলিমাল আস্তানা গেড়েছিল।

গ্রামের মানুষ মহাত্মা বুদ্ধকে আটকালেন, এবং বললেন - এই রাস্তা দিয়ে যাবেন না, ওদিকে নর হত্যাকারী ডাকাত অঙ্গুলিমাল এর আস্তানা। সে প্রতিজ্ঞা করেছে ১০০০ নর হত্যা করবে, এবং ৯৯৯ টা নর হত্যা করেও ফেলেছে।

সে মানুষ মারার আগে দ্বিতীয় বার চিন্তা করে না। সে ভাববে না যে আপনি মহাত্মা বুদ্ধ। সে আপনাকেও হত্যা করবে। আপনি বরং এদিকে আরেকটি রাস্তা আছে, এই রাস্তা দিয়ে চলে যান।

inspirational stories
inspirational stories
    
মহাত্মা বুদ্ধ বললেন - আমি যদি না যাই তবে কে যাবে? সে তো একজনের জন্য অপেক্ষা করে আছে। তার আমাকে ভীষণ প্রয়োজন। আমি অবশ্যই যাব। হয় সে আমাকে হত্যা করবে আর না হয় আমি তাকে পরিবর্তন করে দেব। এই বলে মহাত্মা বুদ্ধ সেই রাস্তা দিয়ে এগিয়ে গেলেন।

উনার শিষ্যরাও উনাকে শেষ বাধা দেবার চেষ্টা করলেন, কিন্তু মহাত্মা বুদ্ধ শুনলেন না। অবশেষে শিষ্যরাও বিপদের আশঙ্কা দেখে আর উনার সাথে আগে এগোলেন না। অতপর মহাত্মা বুদ্ধ একাই সেই জায়গায় গিয়ে পৌঁছালেন।

অঙ্গুলিমাল দূরে একটি পাথরের উপর বসে ছিল। সে লক্ষ্য করল কেউ একজন তার দিকে এগিয়ে আসছে। তাকে দেখে অঙ্গুলিমাল ভাবতে লাগল - লোকটি একেবারেই অজানা বলে মনে হচ্ছে, নাহলে এখেনে আমি আছি জানলে এই পথে আসত না। মনে মনে সে খুশিও হতে লাগল কারন আজ তার ১০০০ নর হত্যার প্রতিজ্ঞা পুর্ন হবে।

কিন্তু মহাত্মা বুদ্ধ যখন তার কাছে এসে পৌছালেন – উনাকে এত নির্মল এত সুন্দর দেখতে লাগছিল যে, উনাকে দেখে অঙ্গুলিমাল এর মধ্যেও সহানুভূতি জেগে ওঠে এবং সে ভাবতে থাকে – এই মানুষটি অন্য মানুষের থেকে আলাদা। এই মানুষটিকে হত্যা করা ঠিক হবে না, আমি একে ছেড়ে দেব। আমি আমার প্রতিজ্ঞা পুরনের জন্য অন্য কাউকে খুঁজে নেব।

অঙ্গুলিমাল মহাত্মা বুদ্ধকে হুঙ্কার দিয়ে বলল – হে সন্ন্যাসী তুমি আর আগে এগিয় না। ফিরে যাও। আমি অঙ্গুলিমাল, আমি ৯৯৯ জনকে হত্যা করেছি। আর একটা কাটা আঙ্গুল আমার প্রতিজ্ঞা পূর্ন হবে। তোমাকে দেখে একজন সন্ন্যাসী মনে হচ্ছে। কিন্তু আমি কোন ধর্ম মানি না, কোন কিছুর পরোয়া করি না। আমি শুধু জানি আর একজন হলেই আমার প্রতিজ্ঞা পুর্ন হবে। তাই বলছি আর আমার দিকে এগিয়ে এস না। না হলে আমি তোমাকে হত্যা করব।

কিন্তু মহাত্মা বুদ্ধ তাও সামনে এগিয়ে গেলেন।

অঙ্গুলিমাল ভাবলেন – এই মানুষটি বোধ হয় বধীর আর না হয় পাগল। সুতরাং সে আবার চেঁচিয়ে বলে উঠল – থাম আর এক পাও এগিয় না।

positive stories bangla
positive stories bangla

মহাত্মা বুদ্ধ বললেন – আমি অনেকদিন আগেই থেমে গেছি, এবার তুমি থাম।

অঙ্গুলিমাল বলল – না, তুমি থাম নি, তুমি এখন ও এগিয়ে আসছ।

মহাত্মা বুদ্ধ বললেন - আমার লক্ষ্য আমি পূর্ন করেছি, আমার আর আগে এগনোর দরকার নেই। তুমি বরং এগিয়ে যাচ্ছ। এবার তুমি থাম।

অঙ্গুলিমাল হাসতে হাসতে বলল – তুমি সত্যিই পাগল, আমি তো এখন ও পাথরের উপর বসে আছি, আর তুমি বলছ আমি এগিয়ে যাচ্ছি। তুমি বরং এগিয়ে আসছ।

মহাত্মা বুদ্ধ তার কাছে এলেন এবং বললেন – আমি শুনেছি তোমার আর একটা আঙ্গুলের প্রয়োজন আছে। আর যদি এই দেহের কথা বল, তো আমার লক্ষ্য আমি পূর্ন করেছি। এই দেহের আর কোন কাজ নেই, আমি যখন মৃত্যু বরন করব মানুষ এই দেহ জ্বালিয়ে দেবে। এই দেহ আর কারো কাজে লাগবে না।

তুমি বরং এটিকে কাজে লাগাও। তোমার প্রতিজ্ঞা পুর্ন কর। আমার মুন্ড বিচ্ছেদ কর, আমার আঙ্গুল কেটে নাও। আমি এই উদ্দেশ্য নিয়েই এখানে এসেছি, কারন এটি আমার কাছে শেষ একটি সুযোগ এই দেহ কারো তো কাজে আসুক। অন্যথায় মানুষ এই দেহ জ্বালিয়ে দেবে।

অঙ্গুলিমাল বলল - এ তুমি কি বলছ? আমি ভাবতাম এই এলাকায় আমি বুঝি একাই পাগল। তুমি চালাকি করার চেষ্টা করো না, কারন আমি খুবই বিপজ্জনক। আমি তোমাকে হত্যা করতে পারি।

মহাত্মা বুদ্ধ বললেন – আমাকে হত্যা করার আগে একটা কাজ করতে পার? বলতে পার এটি আমার মৃত্যুর আগে শেষ ইচ্ছা।

অঙ্গুলিমাল বলল – বল তোমার শেষ কি ইচ্ছা?

life changing stories
life changing stories

মহাত্মা বুদ্ধ বললেন – আমাকে কেটে ফেলের আগে এই গাছটার একটা ডাল তুমি কেটে দেখাও।

অঙ্গুলিমাল সঙ্গে সঙ্গে তার হাতের খর্গ দিয়ে এক কোপে গাছটির একটি ডাল কেটে ফেলল।

মহাত্মা বুদ্ধ বললেন – এবার তুমি আরেকটি কাজ কর। এই গাছের ডালটিকে আবার জোড়া লাগিয় দাও।

অঙ্গুলিমাল বলল – এবার আমি পুরোপুরি বুঝতে পারলাম তুমি সত্যি একটা পাগল। কাটা জিনিস কখনোই জোড়া লাগান যায় না। আমি কাটতে তো পারি কিন্তু জুড়তে পারি না।

মহাত্মা বুদ্ধ এবার হাসলেন এবং বললেন - যখন তুমি কেবল ধ্বংস করতে পার এবং তৈরি করতে পার না, তাহলে তোমার ধ্বংস করার ও কোন অধিকার নেই। কারণ ধ্বংস তো বাচ্চারাও করতে পারে, আর এতে কোন বাহাদুরি নেই।

এই গাছের ডালটা একটা বাচ্ছাও কেটে ফেলতে পারে, কিন্তু একে জুড়তে একজন প্রভুর দরকার। তো তুমি যদি একটি গাছের ডালকে পুনরায় যুক্ত করতে না পার, তাহলে তুমি মানুষের মুন্ড বিচ্ছেদ কীভাবে করতে পার? তুমি কি কখনও এটি সম্পর্কে ভেবে দেখছ?

অঙ্গুলিমাল এই কথা শুনে তার চোখ বন্ধ করে ফেলল এবং মহাত্মা বুদ্ধের পায়ে পড়ল, এবং বলল – আমি এই ভাবে কোনদিন ভেবে দেখিনি। আপনি ঠিকই বলেছেন আমি যদি তৈরি করতে না পারি, তো আমার ধ্বংস করার ও কোন অধিকার নেই।

short motivational stories
short motivational stories

কিন্তু আমি জানি না আমার এখন কি করা উচিত? আপনি দয়া করে আমাকে সেই পথ দেখান।

এর পর কথিত আছে যে সেই মূহুর্ত থেকে অঙ্গুলিমাল নিজেকে পরিবর্তন করে ফেলে, এবং তার ধ্বংসাত্মক মানসিকতা সৃজনশীলতায় পরিবর্তিত হয়। এবং ধিরে ধীরে সেও একজন সন্ন্যাসি হয়ে যায়।

Positive story | নিজেকে কারো সাথে তুলনা করো না | Motivational story bangla | Pranab Debnath

এই গল্পটি থেকে আমরা কি শিখতে পাই

বন্ধু এই গল্পটি থেকে আমারা এটাই শিখলাম যে – কোন মানুষ যতই খারাপ প্রকৃতির হোক না কেন, সঠিক জ্ঞান এবং একটি উত্তম বিচার যেকোন মানুষের হৃদয় পরিবর্তন করে দিতে পারে। হ্যা বন্ধু একটি উত্তম বিচার এই দুনিয়া বদলে দিতে পারে। বদলে দিতে পারে সারা সংসার।

তাই আমিও বলব – শুধু একটি বিচার আপনার জীবনেও উথাল পাথাল করে দিতে পারে। তাই সবসময় উত্তম বিচার মনে নিয়ে আসুন, আর এমন কাজ করুন যা পুর দুনিয়া আপনার মত করতে চায়, কারন জীতবে তারাই যারা কিছু করে দেখাবে।

Think positive, Talk positive, Feel positive

20 best motivational quotes in Bengali | শ্রেষ্ঠ অনুপ্রেরণা মূলক উক্তি ও বাণী | motivational status in Bengali

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ

‘Freedoms Today’ নামে আমাদের আরেকটি YouTube channel আছে। যেখানে আমরা Network marketing-এর সম্বন্ধে ভিডিও বানিয়ে থাকি। আপনি যদি Network marketing-এর সম্বন্ধে জানতে চান এবং Network marketing শিখতে চান তো এই channel টি follow করতে পারেন। এবং আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে আপনি আমাদের website visit করতে পারেন।

Freedoms Today Website: http://www.freedomstoday.com/

Freedoms Today YouTube channel: https://www.youtube.com/FreedomsToday

Email: freedomstoday1@gmail.com


Post a Comment

0 Comments