Short motivational stories | সফল হতে গেলে ব্যাথা সহিতে হবে | Short stories with moral

Short motivational stories | সফল হতে গেলে ব্যাথা সহিতে হবে | Short stories with moral



আমারা জানি এই দুনিয়া সবসময় সফল মানুষদেরই সন্মান করে, শ্রদ্ধা করে। কিন্তু আমরা এটা জানি কি, যে সফল হতে গেলে কষ্ট সহিতে হয়, ব্যাথা সহিতে হয়?

positive stories bangla, Motivational story, short stories with moral lesson
Short motivational stories - Two stones

আজকের গল্প ‘দুটি পাথর’।

এক সময়ের কথা, এক মূর্তিকার তার মূর্তি বানানোর সরঞ্জাম নিয়ে এক জঙ্গলের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিলেন। কিছু দূর যাবার পরে তিনি রাস্তার ধারে একটা সুন্দর পাথর দেখতে পেলেন, এবং তিনি ভাবলেন এই পাথরটা দিয়ে একটা সুন্দর মূর্তি তৈরী করবেন। অতপর তিনি তার ব্যাগের ভেতর থেকে সরঞ্জাম বার করলেন এবং পাথরের গায়ে খোদাই করতে লাগলেন।

তখনই পাথর বলে উঠল – তুমি এটা কি করছ? আমার ভীষণ ব্যথা লাগছে। তুমি এরকম কোরো না।

এটা শোনার পর মূর্তিকার তার সরঞ্জাম ব্যগের ভেতর ডুকিয়ে নেয় এবং আগে এগিয়ে যায়। কিছুদূর যাবার পর মূর্তিকার আবার একটি সুন্দর পাথর দেখতে পায়। এবং উনি এবারও এই পাথরটি দিয়ে একটি সুন্দর মূর্তি বানাবে স্থির করে।

তিনি আবার তার ব্যাগের ভেতর থেকে সরঞ্জাম বার করলেন এবং পাথরের গায়ে খোদাই করতে লাগলেন। এবং তাতে একটি ভগবানের মূর্তির আকার দিতে লাগলেন। মূর্তিকারের নিপুণ দক্ষতায় ধীরে ধীরে পাথরটি একটি অত্যন্ত সুন্দর ভগবানের মূর্তির রুপ নিল।

এরপর মুর্তিকার ভগবানের মূর্তিটি সেখানেই রেখে দিয়ে আগে এগিয়ে গেলেন এবং যেতে যেতে একটি গ্রামে গিয়ে পৌঁছালেন। সেখানে গিয়ে তিনি দেখলেন যে একটি খুব সুন্দর মন্দির তৈরী হচ্ছে, এবং কিছু মানুষ দাঁড়িয়ে এই মন্দিরের ব্যাপেরেই কথা বলছেন।

তাদের কথা শুনে মুর্তিকার বুঝতে পারলেন যে মন্দির তৈরী প্রায় শেষ হয়ে এসছে, কিন্তু ভগবানের মূর্তি এখনো তৈরী হয় নি। তাদের একটি ভগবানের মূর্তির প্রয়োজন।

মুর্তিকার তাদের দিকে এগিয়ে গেলেন এবং বললেন – আপনারা মূর্তির জন্য চিন্তা করবেন না। আপনারা জঙ্গলের মধ্যে এই রাস্তা দিয়ে যান, সেখানে আপনারা একটি সুন্দর ভগবানের মূর্তি দেখতে পাবেন। আমি কিছু আগেই সেই মূর্তিটি খোদাই করেছি। আপনারা এই মন্দিরে সেই মূর্তিটি স্বাপন করতে পারেন।

এরপর গ্রামের কিছু মানুষ মিলে সেই জঙ্গলের রাস্তায় এগিয়ে যায় মূর্তির খোঁজে। কিছু দূর যাবার পরেই তারা ভগবানের মূর্তি টি দেখতে পান, এবং তারা মূর্তিটি নিয়ে এসে মন্দিরে স্বাপন করলেন।

এবার মানুষ মন্দিরে আসতে শুরু করে। তারা ভগবানের মূর্তির সামনে মাথা ঠেকায়, এবং প্রার্থনাও করেন। কিন্তু সেই মন্দিরে নারকেল ফাঠানোর কোন জায়গা ছিল না। তখন সেই মন্দিরের পুরোহিতের মাথায় একটা ভাবনা আসল যে, নারকেল ফাঠানোর জন্য মন্দিরের বাইরে একটি পাথর দরকার।

তখন মুর্তিকার পুরোহিতকে সেই প্রথম পাথরের কথাটা বলেন। যেটা দিয়ে সে একটা মূর্তি বানাতে চেয়েছিল, কিন্তু বানায় নি।

এটা শোনার পর গ্রামের মানুষেরা জঙ্গল থেকে সেই পাথরটাকে নিয়ে আসে, এবং মন্দিরের বাইরে রেখে দেয়। এবার যারাই মন্দিরে পূজ দিতে আসে, তারা এসে সেই পাথরের উপরই তাদের নারকেল ফাঠায়।

এর পর একদিন রাতে যখন মন্দিরে কেউ থাকে না, তখন এই দুই পাথর নিজেদের মধ্যে কথা বলতে থাকে। যে পাথরের মাথায় আজ সাবাই নারকেল ফাঠায় সেই পাথরটি ভগবানের মূর্তি রুপে পাথরটিকে বলে – আজ তোর কত ভাগ্য, সাবাই তোকে আজ ভগবান রুপে পূজা করে, আরতি করে। আর আমাকে দেখ...

এবার সেই ভগবানের মূর্তি রুপে পাথরটি বলে – যদি তুই সেই দিন আমার মত ব্যথা, কষ্ট সহ্য করে নিতি, তো আজ তাহলে তুই আমার জায়গায় বসে থাকতি।

এই গল্পটি থেকে কি শিখলাম

এই দুনিয়ায় মানুষ সবসময় সফল মানুষদেরই সন্মান করে, শ্রদ্ধা করে। আর জীবনে সফলতা তারাই অর্জন করে যারা তাদের জীবনে অনেক কষ্ট সহ্য করে, অনেক ব্যথা সহ্য করে, সেই ভগবান রুপে পাথরটির মত। তাই বলব আপনারা আজ যা কিছু করুন না, জীবনে যদি সফল হতে চান তো পরিশ্রম করুন, মন দিয়ে কাজ করুন। আর এমন কাজ করুন যা পুর দুনিয়া আপনার মত করতে চায়, কারন জীতবে তারাই যারা কিছু করে দেখাবে।

ইতিবাচক ভাবুন – ইতিবাচক বলুন – ইতিবাচক অনুভব করুন

Short Motivational Story | যদি আপনি আগে যেতে পারেছেন না, তো পড়ুন | Motivational bangla golpo


বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ

‘Freedoms Today’ নামে আমাদের আরেকটি YouTube channel আছে। যেখানে আমরা Network marketing-এর সম্বন্ধে ভিডিও বানিয়ে থাকি। আপনি যদি Network marketing-এর সম্বন্ধে জানতে চান এবং Network marketing শিখতে চান তো এই channel টি follow করতে পারেন। এবং আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে আপনি আমাদের website visit করতে পারেন।

Freedoms Today Website: http://www.freedomstoday.com/

Freedoms Today YouTube channel: https://www.youtube.com/FreedomsToday

Email: freedomstoday1@gmail.com

Comments

Post a Comment